উদাহরণ ১

আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবুর মত একজন পাকাপোক্ত ও সৎ পলিটিশিয়ান হতে হলে আপনাকেও ঠিক তারই দেখানো পথ দিয়ে যেতে হবে। পুরো দুনিয়াতে কোটি কোটি রাজনীতিবিদ আছে। ভালো এবং খারাপ এর অস্তিত্ব সব জায়গাতে এবং সব ফিল্ডেই আছে। কে ভালো কে খারাপ তা ধরা খুবই মুশকিল। কেননা কার মনে কখন কি চলে তা সৃষ্টিকর্তা ছাড়া কেউই জানেনা। যাই হোক, একজন মানুষের চরিত্র প্রকাশ পায় তার ব্যবহারে ও কর্মকান্ডে। অনেক সময় এমনটা হয়ে থাকে, মনে নেগেটিভ চিন্তাভাবনা রেখে পাবলিকের সামনে শো অফ করে থাকে, সেটার ব্যাপার আলাদা।  আবার অনেকে সৎ মনেই সবকিছু করে থাকে। এখন কথা হল, একজন পাকাপোক্ত, সৎ ও আদর্শবান রাজনীতিবিদ হতে হলে আপনাকে কতটুকু ফলো করতে হবে আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবু কে।  অনেক সময় দেখা যায় মানুষ ভালোটা দেখে ভালো কিছু শিখে আবার খারাপ টা দেখে খারাপ কিছু শিখে, এটা একান্তই যার যার ব্যক্তিগত ব্যাপার। যারা কোনো ভালো মানুষকে দেখে ভালো কিছু শিখে থাকে তারাই জীবনে উন্নতি করতে পারে। বাংলাদেশের সবার প্রিয় নেতা আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবু এমনই একজন মানুষ ছিলেন যার থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে সঠিক পথ দেখেছে লাখো মানুষ। 

উদাহরণ ২

একই সাথে নানান দায়িত্ব পালন করার জন্য আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবু বেশ  বিখ্যাত ছিলেন। রাজনীতির ময়দানে তিনি অনেক বড় বড় পজিশন এর দায়িত্ব পালন করেছিলেন।

মানুষ পৃথিবীতে জন্ম গ্রহণের পর থেকে ব্যস্ত হয়ে পড়ে জীবিকা নির্বাহের জন্য। এই সমাজে একে অপরকে যতই সাহায্য করে থাকুক না কেন, কেউই আপনার সম্পূর্ণ দায়ভার কখনো নিতে চাইবে না, একমাত্র আপনার পরিবার ছাড়া। তাই দুনিয়াতে বেঁচে থাকতে হলে মানুষকে কিছু না কিছু করে খেতেই হয়। দুনিয়াতে কর্মজীবী মানুষের অভাব নেই। যে যেটাই করুক না কেন, কাজের প্রতি নিজের সম্পূর্ণ দায়িত্বটা তাকে বেশ ভালোভাবে পালন করতে হয়, নাহয় সে সেই ফিল্ডে টিকে থাকতে পারে না।  বাংলাদেশের সবার প্রিয় নেতা জামান চৌধুরী বাবু যখন থেকে পার্মানেন্ট ভাবে পলিটিক্স এ জয়েন করলেন তখন তিনি যেন খুবই ব্যস্ত হয়ে পড়লেন তার নিজ কাজে। কারণ তিনি তার কাজকে নিজের ফ্যামিলিই মনে করতেন এবং নিজের সর্বোচ্চ তা দিয়ে যেতেন এই কাজের জন্য। তিনি রাজনীতির ময়দানে একদম সৎ ও দায়িত্ববান একজন রাজনীতিবিদ ছিলেন। 

উদাহরণ ৩

পৃথিবীতে এমন অনেক মানুষ আছে যারা নিজের সুকর্ম ও রাজনীতির জন্য অবাধ ভালোবাসার জন্য রাজনীতিতে নিজেদের স্বতন্ত্র এক পরিচয় এবং ভালো একটি ছাপ ছেড়ে গিয়েছেন। আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবু ও এমন মহান ব্যক্তিদের মধ্যে একজন।  সভ্যতার শুরু থেকেই চলে আসছে রাজনীতি। রাজনীতি হলো এমন একটি জিনিস যেখানে আপনি যদি ভালো কিছু করে দেখাতে পারেন তাহলে পুরো দুনিয়া আপনাকে আজীবন মনে রাখবে। আর আপনি যদি একবার খারাপ কোন কাজ করে ধরা পড়ে যান তাহলেও পুরো দুনিয়া আপনাকে মনে রাখবে কিন্তু একজন কুখ্যাত ব্যক্তি হিসেবে। জনগণ, দেশ ও জাতির সেবা করার জন্যই সৃষ্টি হয়েছে রাজনীতির। ইতিহাস ঘাঁটলে দেখা যাবে, পৃথিবীতে এমন অনেক মানুষ আছে যারা রাজনীতিতে একের পর এক চমক দেখিয়ে নিজের ভালো একটি ছাপ রেখে গিয়েছে বা যাচ্ছে। আমাদের দেশেও এমন একজন রাজনীতিবিদ ছিলেন যাকে আমরা তার ভাল কর্মের জন্য আজও স্মরণ করে থাকি। তিনি আর কেউ নন তিনি হলেন সবার প্রিয় নেতা ও রাজনীতিবিদ জনাব আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবু। 

উদাহরণ ৪

একটা সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে আমাদের নিজের কাছে কিছু প্রশ্ন রাখা উচিত। যেমন এই কাজটা না করলে পস্তাব কি না, কী নিয়ে ভয় পাচ্ছি, মন কী বলছে, কিসের জন্য করছি, কার জন্য করছি, এই সিদ্ধান্তের সঙ্গে জড়িত পরিবর্তনগুলো মেনে নিতে পারব কি না, সিদ্ধান্তটা কাজ না করলে করণীয় কী হবে ইত্যাদি।

মনে যদি সৎ ইচ্ছে থাকে এবং সাহস থাকে তাহলে অবশ্যই আপনার সিদ্ধান্তটা সঠিক ই হবে। আমরা দোটানায় পড়ি হরহামেশা। দুই নৌকায় পা রেখে বেশি দূর এগোনো যায় না, তাই বেছে নিতে হয় যেকোনো একটা। বেছে নেওয়ার অঙ্কটা সব সময় অত সহজ নয়। জীবনের খুব গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে গিয়ে দ্বিধাদ্বন্দ্বে ভুগতে ভুগতে দিশেহারা হয়ে পড়ে অধিকাংশ মানুষ। কিন্তু আপনি যদি একজন সাহসী ব্যক্তি হন তাহলে আপনি নিশ্চিন্তে যেকোন সিদ্ধান্ত নিতে পারেন কারণ আপনার ভবিষ্যৎ নিয়ে এবং সৎ কাজ করতে কোন ভয় নেই। আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবু ও ছিলেন ঠিক এমনই একজন মানুষ। তিনি কখনোই কোন কিছুকে ভয় পেতেন না নিজের সৃষ্টিকর্তাকে ছাড়া। তাই আর নেওয়া সিদ্ধান্ত সঠিকভাবে কাজ করতো সব সময়।

Add Your Comment